১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ক্যারিবীয়দের লজ্জা দিল প্রোটিয়ারা


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ঘরের মাটিতে তিন ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টে ইনিংস ও ২২০ রানের বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। সেঞ্চুরিয়ানে র‌্যাঙ্কিংয়ের এক ও আট নম্বর দলের লড়াইটা ছিল একেবারে একতরফা। প্রতিরোধ তো দূরের কথা দুর্ধর্ষ প্রোটিয়াদের নাড়াতে পারেনি অতিথি ক্যারিবীয়রা! ৫ উইকেটে ৫৫২ রানে নিজেদের প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে দক্ষিণ আফ্রিকা, জবাবে ২০১ রানে গুটিয়ে গিয়ে ফলোঅনে পড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দ্বিতীয় ইনিংসে অলআউট হয় ১৩১ রানে! স্বভূমে নেতৃত্বের অভিষেকে ২০৮ রানের ম্যারাথন ইনিংস খেলে ম্যাচসেরা আমলা। পোর্ট এলিজাবেথে ২৬ ডিসেম্বর শুক্রবার ‘বক্সিং ডে’তে শুরু হবে দ্বিতীয় টেস্ট।

২ উইকেটে ৭৬ রান নিয়ে শনিবার দ্বিতীয় বার ব্যাটিং শুরু করা ক্যারিবীয়রা অলআউট হয় মাত্র ১৩১ রানে। দুই ইনিংস মিলিয়ে আয়ু মোটে ১০২.৫ ওভার, আগেরদিন তিন সেশন ও কাল চতুর্থ দিনে এক সেশনÑ এই তো একদিনে গুটিয়ে যাওয়ারই শামিল! ন্যূনতম হাফ সেঞ্চুরি নেই কারও। স্বাগতিক বোলারদের দাপটে সারাদিন কেবল প্যাভিলিয়নে আসা-যাওয়ার মিছিলে মেতেছেন অতিথি ব্যাটসম্যানরা। তাদের দ্বিতীয় ইনিংস ঢেকে দিয়েছে প্রথম ইনিংসের লজ্জা! সকালে ১৫ ওভার খেলতে পেরেছে তারা, করেছে ৩৫ রান! স্টেইনগান তোপে দিশেহারা ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে সর্বোচ্চ ৩৯ রান করেন চার্লস জনসন। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২০ ওপেনার কার্ক ব্রেথওয়েটের। বাকি ব্যাটসম্যানদের স্কোরের দিকে তাকালে মোবাইল ডিজেট বলে ভ্রম হবে! প্রথম ইনিংসে ১৪ রান করা অধিনায়ক দিনেশ রামদিন কাল করেছেন তার চেয়ে মোটে ১০ কম! ফিরেছেন ৪ রানে। মধ্যপথে বাতিল হওয়া ভারত সফরের বিতর্কের পর এই সিরিজে নিজেকে সরিয়ে রেখেছেন অধিনায়ক ডোয়াইন ব্রাভো, সঙ্গে থাকলেও ইনজুরির জন্য মাঠে নামতে পারেননি বড় তারকা ক্রিস গেইল। এত সবের মাঝে ব্যাট হাতে দলটির ভরসার নাম শিবনারায়ণ চন্দরপল। তার ব্যাট থেকে এসেছে মোটে ২১ ও ১৭ রান! প্রথম ইনিংসের সর্বোচ্চ ওপেনার ডিওন স্মিথের। প্রথম ইনিংসে উইকেট শূন্য থাকা স্টেইন কাল একাই নিয়েছেন ৬ উইকেট। ক্যারিয়ারে ২৫তম বারের মতো পাঁচ শিকার। গত পাঁচ টেস্টের প্রতিটিতেই কোন না কোন ইনিংসে পাঁচ উইকেট নিলেন নাম্বার ওয়ান পেসার। প্রোটিয়াদের প্রথম ইনিংসের গল্পটা আমলার। গত শ্রীলঙ্কা সফরে টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক হলেও ঘরের মাটিতে এটিই ছিল তার প্রথম ম্যাচ, সেখানে ২০৮ রানের ম্যারাথন ইনিংস খেলে নায়ক তিনি। সঙ্গে এবি ডি ভিলিয়ার্সের ১৫২ ও অভিষিক্ত ফন জিলের অপরাজিত ১০১ স্বাগতিকদের জয়ের ভীত গড়ে দেয়।

স্কের ॥ দক্ষিণ আফ্রিকা প্রথম ইনিংস ৫৫২/৫ ডিক্লে. (আমলা ২০৮, ডি ভিলিয়ার্স ১৫২, ফন জিল ১০১*, এলগার ২৮, পিটারসেন ২৭; রোচ ২/৫২, বেন ২/১৪৮), ওয়েস্ট ইন্ডিজ প্রথম ইনিংস ২০১/১০ (৬০.২ ওভার; স্মিথ ৩৫, ব্রেথওয়েট ৩৪, স্যামুয়েলস ৩৩, জনসন ৩১; ফিল্যান্ডার ৪/২৯, মরনে মরকেল ৩/৫৫) ও দ্বিতীয় ইনিংস ১৩১/১০ (৪২.৩ ওভার; জনসন ৩৯, ব্রেথওয়েট ২০, ব্লাকউড ১৫; স্টেইন ৬/৩৪, মরকেল ২/৪৩)

ফল ॥ দক্ষিণ আফ্রিকা ইনিংস ও ২২০ রানে জয়ী।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: