২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শিক্ষক-কর্মচারী পনেরো ॥ শিক্ষার্থী ৭১ নিয়ে স্কুল চলছে নওগাঁয়


বিশ্বজিৎ মনি, নওগাঁ ॥ বিদ্যালয়টিতে শিক্ষার্থীর সংখ্যা মাত্র ৭১ । কর্মরত আছেন ১৫ শিক্ষক-কর্মচারী। তাঁরা নিয়মিতভাবে প্রতি মাসে ব্যাংক থেকে সরকারী বেতনভাতার এক লাখ ৬৭ হাজার ১৩৮ টাকা উত্তোলন করছেন। এতে বিপুল পরিমাণ সরকারী অর্থ গচ্চা গেলেও সংশ্লিষ্ট দফতরের নজরদারি নেই এই প্রতিষ্ঠানের দিকে। গত এক বছর ধরে এ অবস্থা চলছে নওগাঁর মান্দা উপজেলার খোর্দ্দ বান্দাইখাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ে। সরকারী প্রজ্ঞাপনে রয়েছে, প্রত্যেকটি বিদ্যালয়ে সহশিক্ষার ক্ষেত্রে ২শ’ জন ও বালিকার ক্ষেত্রে ১শ’ শিক্ষার্থী প্রয়োজন। তবেই পাঠদানের অনুমতি, একাডেমিক স্বীকৃতি ও এমপিওভুক্তিসহ অন্যান্য সুবিধা পাবে সেই প্রতিষ্ঠান। কিন্তু সরকারি প্রজ্ঞাপনের মাত্র এক তৃতীয়াংশ শিক্ষার্থী নিয়ে ওই প্রতিষ্ঠানটি কিভাবে সরকারী সুযোগ সুবিধা ভোগ করছে, এ নিয়ে এলাকাবাসীর মনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। সম্প্রতি বিদ্যালয়টি পরিদর্শনে গিয়ে দেখা গেছে, শিক্ষার্থীদের বার্ষিক পরীক্ষা চলছে। সরকারী অর্থায়নে নির্মিত বিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনের দুটি কক্ষে ৬ষ্ঠ, ৭ম ও ৯ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। পরীক্ষার্থীদের উপস্থিতি ছিল ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে ১৮ জন, ৭ম শ্রেণীতে ২৩ জন ও ৯ম শ্রেণীতে মাত্র ১০ জন। বিদ্যালয়ের পুরনো জীর্ণ ভবনের একটি কক্ষে ৭ জন শিক্ষার্থী নিয়ে এসএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতিমূলক কোচিং চলছে। তবে ২০১৫ সালে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়ার জন্য মাত্র ১০ শিক্ষার্থী ফরম পূরণ করেছে। এবার জেএসসি পরীক্ষায় ওই প্রতিষ্ঠান থেকে মাত্র ১১ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয়। এটিই হচ্ছে খোর্দ্দ বান্দাইখাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের বর্তমান চিত্র। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ১৯৯২ সালে উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের প্রত্যন্ত পল্লীতে খোর্দ্দ বান্দাইখাড়া উচ্চ বিদ্যালয়টি নির্মাণ করা হয়। ১৯৯৫ সালের ১ জানুয়ারি বিদ্যালয়টি একাডেমিক স্বীকৃতি লাভ করে। প্রতিষ্ঠানটি এমপিওভুক্ত হয় ২০০০ সালে। এ বিদ্যালয়ে কর্মরত আছেন প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষক ছাড়াও ৯ সহকারী শিক্ষক, ১ গ্রন্থাগারিক, ১ অফিস সহকারী, ১ এমএলএসএস ও ১ জন নৈশপ্রহরী।