২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

লাহোরে পিএমএল কর্মীদের রাস্তায় না নামার নির্দেশ


পাকিস্তান মুসলিম লীগের (নওয়াজ) পিএমএল (এন) নেতৃত্ব ফয়সলাবাদের সহিংস ঘটনা এড়াতে দলের এমএনএ, এমপি ও পার্টি কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন তারা যেন দলীয় কর্মীদের নির্দেশ দেন পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) পার্টির বিক্ষোভ মিছিলের দিন সোমবার লাহোরের রাস্তায় না নামেন। অন্যদিকে, পিটিআই প্রধান ইমরান খান শনিবার বলেছেন, আলোচনার সফলতা নির্ভর করে পিএমএল (এন) সরকারের আন্তরিকতার ওপর। তিনি থেমে যাওয়া সংলাপ আবারও শুরু করার জন্য প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। খবর ডন ও এক্সপ্রেস ট্রিবিউন অনলাইনের।

এক পিএমএল-এন শীর্ষ নেতা পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেছেন, আমি ফয়সলাবাদ ঘটনার পুনরাবৃত্তি চাই না। তিনি লাহোরের দলীয় পার্লামেন্ট সদস্য ও কর্মকর্তাদের প্রতি এক নির্দেশে বলেন, সোমবার পিটিআই কর্মীদের সঙ্গে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনায় লিপ্ত হওয়ার জন্য কোন দলীয় কর্মী যাতে রাস্তায় না নামে তা নিশ্চিত করুন। নেতা ডনকে বলেন, ফয়সলাবাদে পিটিআইয়ের বিক্ষোভ যেভাবে মোকাবেলা করা হয়েছে তাতে খুশি নয় দলীয় নেতৃত্ব। সেখানে পিএমএল-এন কর্মীদের শক্তি যুগিয়েছে স্থানীয় নেতৃত্ব।

মৃত্যুদ- কার্যকরের ১৮ বছর পর নির্দোষ প্রমাণিত

ধর্ষণ ও হত্যার দায়ে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া এক চীনা তরুণের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার ১৮ বছর পর তাকে নির্দোষ ঘোষণা করেছে আদালত। দেশটির একটি আদালত পুনর্বিচারের পর হাগজিলতু (কোইসিলেতু নামেও পরিচিত ছিলেন) নামের ওই তরুণকে সোমবার নির্দোষ ঘোষণা করে। খবর এনডিটিভি।

১৯৯৬ সালে চীনের ইনার মঙ্গোলিয়া প্রদেশের ১৮ বছরের তরুণ হাগজিলতুকে বিচারে দোষী সব্যস্ত করে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়। কিন্তু নয় বছর পর ২০০৫ সালে আরেক ব্যক্তি ওই অপরাধ তিনি করেছেন বলে স্বীকারোক্তি দেন। তাতে হাগজিলতু’র বিচারের যথার্থতা নিয়ে সন্দেহ দেখা দেয়। ‘চীনা চরিত্রবৈশিষ্ট্যের’ আইনের শাসনকে শক্তিশালী করতে আদালতের কাছে হাগজিলতুর পুনর্বিচার করার অনুরোধ জানান চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির নেতারা। এরপর আদালত এক বিবৃতিতে বলে, ‘হাগজিলতু’র বিচারের আসল অপরাধীকে খুঁজে পেয়েছে ইনার মঙ্গোলিয়ার সর্বোচ্চ গণআদালত।’ ‘হাগজিলতু নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছেন।’ এ ঘটনায় হাগজিলতুর মা-বাবার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন আদালতের ডেপুটি প্রেসিডেন্ট এবং ঘটনার ক্ষতিপূরণ হিসেবে ৩০ হাজার ইউয়ান (৪,৮৫০ ডলার) দেয়ার প্রস্তাব দিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কয়েকটি ছবি পোস্ট করে ডেপুটি প্রেসিডেন্ট ক্ষমা চাচ্ছেন এমন দেখানো হয়েছে।