২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

বেতন ও চাকরি কমিশনের মেয়াদ এক সপ্তাহ বাড়ল


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত দেশের বাইরে থাকায় ‘বেতন ও চাকরি কমিশন ২০১৩’-এর মেয়াদ এক সপ্তাহ বাড়িয়েছে সরকার। অর্থমন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়ন অনুবিভাগ থেকে রবিবার এ সংক্রান্ত একটি আদেশ জারি করা হয়েছে।

সোমবার ১৫ ডিসেম্বর কমিশনের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল। এর আগে কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন মেয়াদ শেষ হওয়ার একদিন আগে ১৪ ডিসেম্বর রবিবার প্রতিবেদন দাখিল করতে চেয়েছিলেন। তবে অর্থমন্ত্রী দেশের বাইরে থাকায় নির্ধারিত সময়ে প্রতিবেদন দাখিল করতে পারছে না কমিশন। এ কারণে কমিশনের মেয়াদ ৭ দিন বাড়ানো হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। ছেলের চিকিৎসার জন্য অর্থমন্ত্রী বর্তমান সিঙ্গাপুরে অবস্থান করছেন। আগামী বুধবার তাঁর দেশে ফেরার কথা রয়েছে। কমিশন সূত্রে জানা গেছে, কমিশনের প্রতিবেদন চূড়ান্ত করা হয়েছে। অর্থমন্ত্রী দেশে ফিরলে যে কোন দিন এ প্রতিবেদন জমা দেয়া হতে পারে।

জানা গেছে, কমিশনের রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর অর্থবিভাগ এটি যাচাই-বাছাই করে দেখবে। সরকারের আর্থিক সঙ্গতি বিবেচনায় নিয়ে কমিশনের রিপোর্ট বাস্তবায়নে উদ্যোগ গ্রহণ করবে সরকার। তবে চলতি অর্থবছরে নয় আগামী ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জুলাই মাস থেকে বেতন বাড়বে দেশের প্রায় ১৪ লাখ সরকারী কর্মচারী-কর্মকর্তার। যদিও কমিশন গঠনের পর থেকেই বেতন-ভাতা বাড়াতে জাতীয় বাজেটে এ খাতে অতিরিক্ত বরাদ্দ রাখার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

এদিকে, কমিশন এবার সরকারী চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতা দ্বিগুণ করার সুপারিশ করেছে বলে জানা গেছে। এতে সর্বোচ্চ বেতন (মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিবের) বর্তমানের ৪৫ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ১ লাখ টাকা এবং সর্বনিম্ন মূল বেতন (চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীদের) বর্তমানের ৪১০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৮২০০ টাকা নির্ধারণের প্রস্তাব করা হয়েছে। আর বিদ্যমান ২০টি গ্রেডের পরিবর্তে তা ১৬টিতে নামিয়ে এনে প্রতিটিতে প্রায় শতভাগ বেতন বাড়ানোর সুপারিশ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত বছর নবেম্বর মাসে সাবেক গবর্নর ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিনকে চেয়ারম্যান করে ছয় মাস মেয়াদী ১৭ সদস্যের ‘বেতন ও চাকরি কমিশন ২০১৩’ গঠন করা হয়। পরে কমিশনের মেয়াদ আরও ৬ মাস বৃদ্ধি করা হয়।