২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

শেহজাদের সেঞ্চুরি, পাকিস্তান ৩৬৪/৭ (৫০ ওভার)


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ওপেনার আহমেদ শেহজাদের ক্ল্যাসিক্যাল সেঞ্চুরি (১১৩) ও শহীদ আফ্রিদির ঝড়ো হাফ সেঞ্চুরির (৫৫) সৌজন্যে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডেতে ৭ উইকেটে ৩৬৪ রানের বিশাল স্কোর গড়েছে পাকিস্তান। আগের ম্যাচে পাওয়া হ্যামস্ট্রিং ইনজুরিতে সিরিজ শেষ হয়ে গেছে মিসবাহ-উল হকের। শারজায় টস জিতে ব্যাটিং বেছে নেয় পাকিস্তান। অধিনায়ক আফ্রিদির সিদ্ধান্তের যথার্থতা প্রমাণ করে দলকে বড় সংগ্রহ এনে দেন পাক ব্যাটসম্যানরা।

ওপেনিং জুটিতে মাত্র ৭.৫ ওভারে ৬৩ রান জমা করেন মোহাম্মদ হাফিজ ও শেহজাদ। ২৬ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কায় ৩৩ রান করে সাজঘরে ফেরেন হাফিজ। এরপর ইউনুস খান আর আসাদ শফিকের সঙ্গেও চমৎকার দুটি জুটি গড়েন শেহজাদ। দ্বিতীয় উইকেটে ইউনুসকে নিয়ে ১৪ ওভারে ৭০, তৃতীয় উইকেটে শফিককে নিয়ে ১৫ ওভারে ৭৭ রান যোগ করলে ৩৭ ওভারে ২১০ রান তুলে বিশাল সংগ্রহের দিকে এগোতে থাকে ফেবারিট পাকিস্তান। অভিজ্ঞ ইউনুস ৩৫ ও শফিক ২৩ রান করে আউট হন। তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে শেহজাদকে ফেরান সফল কিউই পেসার ম্যাট হেনরি। তার আগে ১২০ বলে ১২ চার ও ২ ছক্কায় ১১৩ রান করেন তিনি। ২৩ বছর বয়সী পাক ওপেনারের ৫৪তম ওয়ানডেতে পঞ্চম সেঞ্চুরি এটি। এর আগে এশিয়া কাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন পাঞ্জাব প্রতিভা। এরপরই মরুর বুকে আফ্রিদি-ঝড়। সরফরাজ আহমেদ ও উমর আকমল দুই প্রতিষ্ঠিত ব্যাটসম্যানকে পাশ কাটিয়ে আগেই ব্যাট হাতে নেমে পড়েন পাক সেনাপতি! খেলটাও দেখান ভালমতোই। পেসার মিচেল ম্যাকক্লেনঘানের বলে কেন উইলিয়ামসনের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরার আগে মাত্র ২৬ বলে ৬ চার ও ৩ ছক্কায় ৫৫ রানের ম্যারাথন ইনিংস খেলেন ‘বুমবুম’ আফ্রিদি। ৩৮৭তম ওয়ানডেতে এটি তাঁর ৩৮ নম্বর হাফ সেঞ্চুরি। ২৮ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কায় ৩৯ রান করে তাঁকে যোগ্য সঙ্গ দেন হারিস। উমর আকমল রানের খাতা খোলার আগে ফিরলেও অষ্টম উইকেট জুটিতে আরেক দফা ঝড় তোলেন সোহেল তানভির (৯ বলে ১৭) ও সরফরাজ আহমেদ (১৪ বলে ৩০)! ফল নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ৩৬৪ রানের পাহাড়সম স্কোর গড়ে পাকিরা। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে পাকিস্তানের এটি দলীয় সর্বোচ্চ রানের নতুন রেকর্ড, আগেরটি ছিল ৩২৭। আর ৩৬৪/৭Ñ যেকোন দলের বিপক্ষে পাকিস্তানের তৃতীয় দলীয় সর্বোচ্চ রান। নিউজিল্যান্ডের হয়ে ম্যাট হেনরি ৩টি, ম্যাকক্লেনঘান, কোরি এ্যান্ডারসন ও নাথান ম্যাককুলাম নেন ১টি করে উইকেট। বিশ্বকাপ সামনে রেখে পাকিস্তানের জন্য এই সিরিজটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। প্রথম ম্যাচ জিতে এগিয়ে গেলেও পাঁচ ওয়ানডের দ্বিতীয়টিতে কিউইদের কাছে হেরে যায় তারা!

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: