১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আহত হকারের মৃত্যু


স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালি থানার মাত্র কয়েক শ’ গজের মধ্যে স্বর্ণের দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনায় ১২ জনকে আসামি করে দুটি মামলা দায়ের হয়েছে। তার মধ্যে জুয়েলারির মালিক বাদী হয়ে একটি এবং পুলিশ বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে অপর একটি মামলা দায়ের করেন। আসামিদের মধ্যে ৩ ডাকাত গ্রেফতার রয়েছে। বোমার আঘাতে গুরুতর আহত এক ব্যক্তি শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে মারা যান। গ্রেফতারকৃত তিন ডাকাতের ২ জন নিজেদের বোমায় গুরুতর আহত হয়। তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। অপরজনকে আদালতে উপস্থিত করিয়ে রিমান্ড চেয়েছে পুলিশ।

সিএমপির কোতোয়ালি থানার এসআই একেএম মহিউদ্দিন সেলিম সাংবাদিকদের জানান, গ্রেফতার করা তিন ডাকাতের মধ্যে ইমতিয়াজ বাবুল ঐ গ্যাংয়ের লিডার। ঢাকা, যশোর, খুলনা, সিলেট, কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে শতাধিক ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকার কথা সে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে। এই দলে রয়েছে ৩০ থেকে ৪০ জন সদস্য। শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর আলকরণ এলাকায় অবস্থিত গিনি গোল্ড জুয়েলার্স ও অপরূপা জুয়েলার্সে ডাকাতিতে অংশ নেয় ১০ জন। বোমা ছুড়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে তারা এ দুটি জুয়েলারিতে ডাকাতির চেষ্টা চালায়। তবে গিনি জুয়েলার্স থেকে প্রায় ১০ ভরি স্বর্ণ লুটের পর অপরূপা জুয়েলার্সে গিয়ে ডাকাতরা বাধাপ্রাপ্ত হয়। বাধা পেয়ে ঐ জুয়েলার্সের এক কর্মচারীকে ডাকাতরা ধামা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। এরপর এলাকায় ভীতি সঞ্চারের জন্য তারা গুলি এবং হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটায়।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: