২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মনোয়ারা ক্লার্ককে দেয়া হলো পরিচয়


স্টাফ রিপোর্টার ॥ ১৯৭১২৬৯২০২৬০৬৬৬২৬ এটি শুধু একটি নম্বর নয়, স্বীকৃতি। মাতা এবং পিতার নামের স্থলে ঢাকার লালবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে উল্লেখ করা হয়েছে। কেননা একদিন সেখানেই মনোয়ারাকে ৭১ রাখা হয়েছিল পুরান ঢাকার মাদার তেরেসা হোমসে। এভাবেই যুদ্ধশিশু মনোয়ারা ক্লার্ককে ফিরিয়ে দেয়া হলো তার পরিচয়।

সম্প্রতি ঢাকায় এসে প্রথম দৈনিক জনকণ্ঠকে দেয়া একান্ত সাক্ষাতকারে মনোয়ারা তাঁর আকুতি জানান। ফিরে পেতে চান তাঁর বাংলাদেশী পরিচয়। মনোয়ারা মুক্তযুদ্ধ মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন জায়গায় এমন দাবি জানানোর পর বিষয়টি নজরে আসে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের। বৃহস্পতিবার ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের অঞ্চল-৩-এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ নিজাম উদ্দিন মনোয়ারাকে জন্মসনদ দেন। আর অঞ্চল-৩-এর সহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ফাহমিদা মনির তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন। শুক্রবারই মনোয়ারা কানাডা ফিরে গেছেন। তিনি প্রবাসী একটি পরিবারের সঙ্গে কানাডা থেকে দেশে আসেন।

মনেয়ারা জনকণ্ঠকে দেয়া সাক্ষাতকারে বলেছিলেন, তিনি প্রথম দত্তক নেয়া লিন্ডা এবং ক্লার্ক দম্পত্তির কাছে জানতে পেরেছিলেন ৭১-এ পাকিস্তানী সৈন্যদের একটি নির্যাতনশালার পাশ থেকে মনোয়ারাকে উদ্ধার করা হয়। পাশেই মরে পড়েছিল তাঁর মা। মনোয়ারার শরীরেও বেনয়েট চার্জ করা হয়। এখনও শরীর যার স্মৃতি বহন করছে। যদিও জীবনের এই গল্পটি মনোয়ারা শুনেছেন, কিন্তু কোন নির্ভরযোগ্য সূত্র থেকে এর প্রমাণ পাননি। নির্যাতনশালার পাশ থেকে মনোয়ারাকে উদ্ধার করে পুরান ঢাকার ‘মাদার তেরেসা হোমসে রাখা হয়েছিল।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: