১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

আজ হানাদারমুক্ত


জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ আজ নরসিংদী, জামালপুর ও সান্তাহারে হানাদারমুক্ত দিবস। খবর নিজস্ব সংবাদদাতাদের পাঠানোÑ

নরসিংদী ॥ আজ ১২ ডিসেম্বর, নরসিংদী হানাদারমুক্ত দিবস। ’৭১-এ নরসিংদী জেলার বিভিন্ন স্থানে নির্মম হত্যাযজ্ঞ চালায় পাকবাহিনী। সেদিনের নির্মম হত্যাযজ্ঞের কথা মনে করে এখনও ভয়ে আঁতকে উঠে নরসিংদীবাসী। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রবল প্রতিরোধের মুখে ১২ ডিসেম্বর

জামালপুর ॥ আজ সরিষাবাড়ী থানা শক্রমুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে ১২ ডিসেম্বর সরিষাবাড়ীবাসীর কাছে অত্যন্ত গৌরবোজ্জ্বল ও স্মরণীয় দিন। এই দিনে মিত্রবাহিনীর সহায়তায় মুক্তিযোদ্ধারা পাকিস্তানী হানাদার বাহিনীর কবল থেকে তৎকালীন জামালপুর মহকুমার সরিষাবাড়ী থানা শত্রুমুক্ত করতে সক্ষম হন।

সান্তাহার ॥ ১২ ডিসেম্বর বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলা পাকি হানাদার মুক্ত দিবস। মহান মুক্তিযুদ্ধে দীর্ঘ ৯ মাস মুক্তিযোদ্ধাদের গেরিলা আক্রমণে ক্ষতবিক্ষত পাকি হানাদার বাহিনী পালিয়ে যাওয়ায়, দেশ স্বাধীনের মাত্র ৪ দিন আগে ১৯৭১ সালে এই দিনে বীর মুক্তিযোদ্ধারা বিজয়ের পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে এই আদমদীঘিকে শত্রুমুক্ত করেন। আদমদীঘি উপজেলা ছিল পাকি হানাদারের শক্ত ঘাঁটি।

মুন্সীগঞ্জে মুক্ত দিবসে

বিজয় র‌্যালি

স্টাফ রিপোর্টার মুন্সীগঞ্জ থেকে জানান, মুন্সীগঞ্জবাসীর অহংকার ও গৌরবোজ্জ্বল দিন ১১ ডিসেম্বর “মুন্সীগঞ্জ হানদারমুক্ত দিবস” বৃহস্পতিবার যথাযথ মর্যদায় পালিত হয়েছে। সকালে শহরের মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন প্রাঙ্গণ থেকে স্মরণকালের সবচেয়ে বড় বিজয় র‌্যালি শহর প্রদক্ষিণ করে। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিকৃতিসহ নানা আকর্ষণীয় ব্যানার ফেস্টুন র‌্যালিটি বর্ণাঢ্য করে তোলে। র‌্যালি শেষে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন ও জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে শহীদের আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। বর্ণাঢ্য এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণ দেন জেলা পরিষদের প্রশাসক বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর আলহাজ মোঃ মহিউদ্দিন। জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও উপজেলা চেয়ারম্যান আনিস-উজ-জামানের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সাবেক সাংসদ এম ইদ্রিস আলী, এ্যাডভোকেট মৃণাল কান্তি দাস এমপি, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের চেয়ারম্যান মাহবুব উদ্দিন আহম্মেদ বীর বিক্রম, অধ্যাপক ড. ওয়াহিদুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আক্কাস আলী সরকার, সহকারী পুলিশ সুপার নার্গিস সুলতানা ও এম এ কাদের মোল্লা প্রমুখ। এই অনুষ্ঠানে সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেয়।

মহেশখালীতে চিংড়িঘের নিয়ে সংঘর্ষ, নিহত এক আহত দুই

নিজস্ব সংবাদদাতা, মহেশখালী, ১১ ডিসেম্বর ॥ মহেশখালীতে চিংড়ি ঘের দখল নিয়ে গোলাম আযমের দেহরক্ষী জামায়াত ক্যাডার আকতার হামিদ বাহিনীর গুলিতে সেলিম (২৮) নামের এক যুবক গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়েছে। গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছে স্কুলছাত্র আরও দু’জন। ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার সন্ধ্যায় কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নে। ঘটনার পর পরই রাত ৮টায় স্থানীয় জনতা হোয়ানকের কেরুনতলী বাজার থেকে সাবেক চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা ওসমান গনী হত্যাসহ একাধিক হত্যা মামলার আসামি কালারমারছড়ার শীর্ষ সন্ত্রাসী বেলাল (৩০)কে একটি দেশীয় অস্ত্রসহ আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। জানা যায়, বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার হোয়ানক ইউনিয়নের কেরুনতলী গ্রামে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও চিংড়িঘের দখল নিয়ে গোলাম আযমের দেহরক্ষী জামায়াত ক্যাডার আকতার হামিদ বাহিনী ও মোস্তফা কামাল বাহিনীর মধ্যে বন্দুকযুদ্ধ শুরু হয়।