২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ঘন কুয়াশা ॥ শিমুলিয়া কাওড়াকান্দি ফেরি পৌনে ১১ ঘণ্টা বন্ধ


স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ ॥ ঘন কুয়াশায় শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি ফেরি সার্ভিস সোমবার রাত ১১টা থেকে পৌনে ১১ ঘণ্টা বন্ধ ছিল। কুয়াশা কেটে যাওয়ার পর মঙ্গলবার সকাল পৌনে ১০টায় শিমুলিয়া ঘাট থেকে ফেরি ফরিদপুর ছেড়ে যায়। এর মধ্য দিয়েই ফেরি চলাচল আবার শুরু হয়। এই দীর্ঘ সময় ধরে কনকনে শীতে প্রায় দু’হাজার যাত্রী ও কয়েক শ’ যান নিয়ে মাঝ নদীতে আটকে থাকা ১২টি ফেরি গন্তব্যে রওনা হয়েছে।

দীর্ঘ সময় ফেরি বন্ধ থাকায় দু’পারে নাইট কোচসহ ৩শ’ যান পারাপারের অপেক্ষায় রয়েছে। তবে ফেরি চালু হওয়ায় যানজট কমতে শুরু করেছে।

বিআইডব্লিউটিসির মাওয়া ঘাটের সহকারী ম্যানেজার শেখর চন্দ্র রায় জানান, কয়েক হাত দূরের বস্তুও দেখা যাচ্ছিল না। কুয়াশার তীব্রতায় নদীর মার্কিং পয়েন্ট ও বিকন বাতিগুলো না দেখতে পাওয়ায় দুর্ঘটনা এরাতে ফেরি সার্ভিস বন্ধ রাখা হয়েছিল। এই সময় মাঝ পদ্মায় ফেরি বীর শ্রেষ্ঠ রুহুল আমিন, শাহ্ আলী, কলমী লতা, করবী, কাকলী, কেতকী, রায়পুরা, রানীগঞ্জ, রানীক্ষেত, টাপলু, থোবাল ও লেন্টিং আটকা পড়ে। কাওড়াকান্দি ঘাটে যানবাহন ভর্তি করে অপেক্ষায় ফেরি রামশ্রী ফেরিও ছেড়ে এসেছে। গুরুত্বপূর্ণ এই ফেরি সার্ভিস দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকায় যাত্রীদের ভোগান্তি চরম আকার ধারণ করে। এ ছাড়া বন্ধ থাকা লঞ্চ ও স্পিডবোটসহ সকল নৌযান চলাচলও শুরু হয়েছে।

ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটে ১৪ ঘণ্টা

নিজস্ব সংবাদদাতা ভোলা থেকে জানান, তীব্র ঘন কুয়াশার কারণে ভোলা-লক্ষ্মীপুর রুটের ফেরি চলাচল ব্যাহত হয়েছে। সোমবার রাত ১০টা থেকে এ রুটে ১৪ ঘণ্টা ফেরি চলাচল বন্ধ থাকে। এতে করে যাত্রীরা চরম দুর্ভোগে পড়ে। ভোলা ফেরি সার্ভিসের সহকারী ব্যবস্থাপক সিহাব উদ্দিন জানান, গত রাতে ১০টার দিকে ১২টি যানবাহন নিয়ে ভোলা থেকে ফেরি কিশানী লক্ষ্মীপুরের উদ্দেশে রওনা দিয়ে মেঘনায় ঘন কুয়াশার কারণে একটি চরে নোঙ্গর করে।