২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ২ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

অবশেষে শ্রম আপীল ট্রাইব্যুনাল চেয়ারম্যানের কার্যালয় স্থানান্তর


স্টাফ রিপোর্টার ॥ সরকারী পরিত্যক্ত একটি জরাজীর্ণ পুরান দ্বিতল ভবন থেকে অবশেষে সাবেক কর ন্যায় পালের কার্যালয়ের নিচ তলায় শ্রম আপীল ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যানের অফিস স্থানান্তরিত হয়েছে। রবিবার শ্রম আপীল ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মোঃ শামসুল হুদা নতুন কার্যালয়ে মামলা পরিচালনা করেন।

শুরুতেই তিনি আইনজীবী সাংবাদিক ও বিচারপ্রার্থীদের ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন ,দীর্ঘ দিন প্রতীক্ষার পর আমরা নতুন কার্যালয়ে আসতে পেরেছি। প্রথম যে দিন ট্রাইব্যুনালে যোগ দিয়েছিলাম সে দিন থেকেই আমার চেষ্টা ছিল একটি ভাল কার্যালয়ের জন্য। যাতে বিচারপ্রার্থী ও আইনজীবীদের জন্য সুবিধা হয়। আদালত ভবনের অনুপযোগী স্থান থেকে ্আমরা একটি ভাল জায়গায় আসতে পেরেছি। আর এটি হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কারণেই। আমি আশা করছি শীঘ্রই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দ্বারা এই কার্যালয় উদ্বোধন করা হবে।

বিচারপতি মোঃ শামুসুল হুদা আরও বলেন ,যারা অফিস স্থানান্তরে প্রতিবদ্ধকতা সৃষ্টি করছেন তাদের এ থেকে বিরত থাকা উচিত। শ্রম আপীল আদালত অনেক উর্ধে। তিনি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন,আদালতের কার্যক্রমে বাধা সৃষ্টি আদালত অবমাননার শামিল। আদালতকে সেদিকে যেন অগ্রসর না হতে হয়।

উপস্থিত আইনজীবীগণ এই ভবনটিকে শ্রম আদালত কমপ্লেক্স করার আবেদন জানান। উত্তরে বিচারপতি মোঃ শামসুল হুদা বলেন, তিনি যথাসাধ্য চেষ্টা করবেন এই ভবনে শ্রম আদালতের অন্য আদালতগুলো আনা যায় কিনা।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ২২ এপ্রিল দৈনিক জনকণ্ঠে জরাজীর্ণ শতবর্ষের পুরান ভবনে চলছে শ্রম আপীল ট্রাইব্যুনালের বিচার কাজ। যে কোন সময় রানা প্লাজার মতো এই ভবনটিও ধসে বড় ধরনের অঘটন ঘটতে পারে। ওই রিপোর্টের পর শ্রম আপীল ট্রাইব্যুনালের নতুন কার্যালয় বরাদ্দ করা হয়েছে। সে কারণে চেয়ারম্যান দৈনিক জনকণ্ঠকেও ধন্যবাদ জানান।