২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ চরমপন্থী নেতা নিহত


নিজস্ব সংবাদদাতা, কুষ্টিয়া, ৭ ডিসেম্বর ॥ কুষ্টিয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ এক চরমপন্থী নেতা নিহত হয়েছেন। তার নাম এনামুল হক (৩৫)। তিনি পূর্ববাংলা কমিউনিস্ট পার্টির (এমএল জনযুদ্ধ) আঞ্চলিক নেতা। শনিবার গভীর রাতে মিরপুর উপজেলার ভাঙা বটতলায় জনৈক শহিদুলের ইটভাঁটির কাছে পুলিশের সঙ্গে চরমপন্থীদের ‘বন্দুকযুদ্ধের’ এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করে।

মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানান, রবিবার রাত ৩টার দিকে চরমপন্থী সংগঠন পূর্ববাংলা কমিউনিস্ট পার্টির ক্যাডাররা শহিদুলের ইটভাঁটায় চাঁদা নিতে আসবে। গোপনসূত্রে এ খবরে মিরপুর থানা ও জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি যৌথ দল আগে থেকেই সেখানে ওঁৎ পেতে থাকে। চরমপন্থীরা এ সময় ঘটনাস্থলে এসে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছুড়তে শুরু করে। পুলিশও পাল্টা গুলি ছুড়লে উভয়পক্ষে বন্দুকযুদ্ধের এক পর্যায়ে চরমপন্থীরা পিছু হটে যায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে তল্লাশি চালিয়ে গুলিবিদ্ধ জনযুদ্ধ আঞ্চলিক নেতা এনামুলকে গ্রেফতার করে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি শার্টারগান, চার রাউন্ড বন্দুকের গুলি, পাঁচ রাউন্ড খোসা উদ্ধার করা হয়।

কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোহেল রেজা জানান, নিহত চরমপন্থী নেতা এনামুল হক দল গোছাতে নতুন করে চাঁদাবাজি শুরু করেছিল। তার বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া, মেহেরপুর, চুয়াডাঙ্গা ও আলমডাঙ্গার বিভিন্ন থানায় অন্তত ৭টি হত্যাসহ মোট ২৪ টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে দু’টি মামলায় সে ২৪ বছরের সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামি ছিল। সে মিরপুরের মালিহাদ ইউনিয়নের আসাননগরের রবিউল ইসলামের ছেলে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: