২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

প্রতিবন্ধীদের মর্যাদা প্রতিষ্ঠা করুন ॥ রাষ্ট্রপতির


রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ প্রতিবন্ধীদের অধিকার ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠায় সমন্বিত সরকারী ও বেসরকারী উদ্যোগের মাধ্যমে সম্মিলিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রতিবন্ধীদের সমাজের মূল স্রোতধারায় সম্পৃক্ত হওয়ার সুযোগ করে দেয়ার তাগিদ দিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘প্রতিবন্ধীরা করুণা চায় না, অধিকার চায়; চায় মর্যাদা। আমাদের সম্মিলিতভাবে তাদের অধিকার ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠা করতে হবে।... অবহেলা নয়, বরং ভালবাসার পাশাপাশি শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রতিবন্ধীদের সমাজের মূল স্রোতধারায় সম্পৃক্ত হওয়ার সুযোগ করে দিতে হবে।’

২৩তম আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস ও ১৬তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে বুধবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি এসব কথা বলেন। খবর বাসসর।

সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী প্রমোদ মানকিন, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম, জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গাজী মোহাম্মদ নূরুল কবীর, জাতীয় প্রতিবন্ধী ফোরামের সভাপতি মোঃ সাইদুল হক বক্তৃতা করেন।

বক্তৃতার শুরুতে রাষ্ট্রপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, ১৯৭১ সালে এই ডিসেম্বর মাসেই বাঙালী জাতি বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে স্বাধীনতা অর্জন করে। রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য জীবন বিসর্জন দেয়া দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতিও শ্রদ্ধা জানান।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেন, ‘প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা এ সমাজেরই অবিচ্ছেদ্য অংশ। জন্মগত ত্রুটি বা অন্য নানা কারণে তারা সাধারণ ব্যক্তি থেকে কিছুটা আলাদা। তবে তাদের বিশেষ যতœ, শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের মাধ্যমে গড়ে তুলতে পারলে তারাও দেশে দক্ষ মানব সম্পদে পরিণত হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি মনে করি, সমন্বিত সরকারী ও বেসরকারী উদ্যোগ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের দক্ষ ও স্বাবলম্বী হিসেবে গড়ে তুলতে সহায়তা করবে।’

তিনি বলেন, বাংলাদেশের সংবিধান সকলের জন্য সমতা ও সামাজিক সুবিচার নিশ্চিত করেছে এবং সরকার প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের কল্যাণে শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও বিনোদনসহ বিভিন্ন কর্মসূচী বাস্তবায়ন করছে।

তিনি বলেন, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার ও সুরক্ষা আইন, ২০১৩ এবং নিউরন বিকাশজনিত প্রতিবন্ধী সুরক্ষা আইন, ২০১৩ প্রতিবন্ধীদের অধিকার নিশ্চিতকরণে দুটি গুরুত্বপূর্ণ আইন।

অটিস্টিক শিশুদের কল্যাণে সরকারের গৃহীত বিভিন্ন উদ্যোগের প্রশংসা করে তিনি বলেন, সরকার অটিস্টিক শিশুদের কল্যাণে বিশেষ কর্মসূচী গ্রহণ করেছে এবং দেশে একটি ‘অটিস্টিক একাডেমি’ স্থাপনের উদ্যোগ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এর পাশাপাশি সাধারণ বিদ্যালয়গুলোতে সার্বিক শিক্ষা সংযোজন করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, দেশের ৬৪টি জেলায় দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের জন্য একটি বিশেষ শিক্ষা কর্মসূচী পরিচালনা করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, শ্রবণ-প্রতিবন্ধীদের জন্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব চিকিৎসা বিশ্ববিদ্যালয়ে ককলিয়ার প্রতিস্থাপন ইউনিট স্থাপন করা হয়েছে। এছাড়া দেশের সকল সরকারী হাসপাতাল ও মেডিক্যাল কলেজে ‘শিশু বিকাশ কেন্দ্র’ স্থাপন করা হয়েছে।

আলোচনা শেষে রাষ্ট্রপতি জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘প্রতিবন্ধিতা উন্নয়ন মেলা’র উদ্বোধন ঘোষণা করেন।