১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

গাইবান্ধায় ঘাঘট নদীতে স্বেচ্ছাশ্রমে বাঁশের সাঁকো


নিজস্ব সংবাদদাতা, ০২ ডিসেম্বর গাইবান্ধা ॥ গাইবান্ধার ঘাঘট নদীতে স্বেচ্ছাশ্রমে ১৭০ ফিট দীর্ঘ একটি বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে ওই এলাকার চার যুবক। সদর উপজেলার খোলাহাটি ইউনিয়নে ভেড়ামারা রেলওয়ে ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় জনকল্যাণে এই সাঁকো নির্মাণ করা হয়েছে। গাইবান্ধা রেল স্টেশনের দেড় কি.মি. উত্তরে অবস্থিত ঘাঘট নদীর এই রেলওয়ে ব্রিজটি পারাপার করেই প্রতিদিন গাইবান্ধার উত্তর অঞ্চলের ছাত্র-ছাত্রী, ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার ২০ থেকে ২৫ হাজার সাধারণ মানুষ এই জীবন জীবিকাসহ নানা প্রয়োজনে গাইবান্ধা শহরে আসেন। রেলওয়ে ব্রিজ দিয়ে আসতে বয়স্ক, শিশু ও নারীদের নানা দুর্ভোগ পোহাতে হয়। কিন্তু সম্প্রতি ওই এলাকার প্রাইমারী স্কুলের শিক্ষক শহিদুল ইসলাম ভেড়ামারা ব্রিজ পাড়ি দিতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হন। এসব অঘটন থেকেই রক্ষা করে মানুষের পথ চলাচলে স্বাচ্ছন্দ্য আনতেই স্থানীয় এক উদ্যমী যুবক নিবেদিত প্রাণ আব্দুল লতিফের নেতৃত্বে ওই এলাকার উদ্যমী সমাজকর্মী ফরিদ, সাইদার ও এরশাদ ভেড়ামারা ব্রিজের পশ্চিম পাশ ঘেঁষে একটি বাঁশের সাঁকো তৈরির পরিকল্পনা করেন। তাদের এই তাদের স্বতঃস্ফূর্ত উদ্যোগে পার্শ্ববর্তী গ্রামের লোকজনও বাঁশ, দড়ি এবং লোহার পেরেক কেনার জন্য নগদ অর্থ দিয়েও সহায়তা করেন। এরপর সাঁকো তৈরির কাজে নিজেরাই নেমে পড়েন ওই চার যুবক। এলাকার লোকজনও তাদের সাথে সহায়তায় স্বতঃস্ফূর্তভাবে এগিয়ে আসেন। একটানা ১০ দিনের পরিশ্রমে তৈরি হয় ওই এলাকার লোকজনের কাক্সিক্ষত সেই স্বপ্নের বাঁশের সাঁকো।