২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

সাফল্য ধরে রাখার লড়াই টাইগারদের


সাফল্য ধরে রাখার লড়াই টাইগারদের

মিথুন আশরাফ ॥ বাংলাদেশ-জিম্বাবুইয়ে সিরিজ যেন বাংলাদেশের জন্য ‘রেকর্ডময়’। আজ যখন জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডেতে খেলতে নামবে মাশরাফিবাহিনী, ম্যাচটি জিতলেই আরেকটি রেকর্ড অক্ষুণœ থাকবে বাংলাদেশের। সে রেকর্ডটি কী? দেশের মাটিতে এখন পর্যন্ত ৫ ম্যাচের সিরিজ খেলে কখনই হারেনি। আজ তৃতীয় ওয়ানডেতে জিতলেই সিরিজ জয়ের সঙ্গে রেকর্ডও অক্ষুণœ রাখতে পারবে বাংলাদেশ।

আজই কী তা করতে পারবে বাংলাদেশ? তৃতীয় ওয়ানডেতেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করা সম্ভব কি না? প্রশ্নটি করতেই বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার উত্তর, ‘অবশ্যই।’ তা করলেই এখন হয়ে যায়। এ পর্যন্ত ১৯৮৬ সাল থেকে আন্তর্জাতিক ওয়ানডে খেলা শুরু করে ৫৬টি দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলে বাংলাদেশ। ২০০৫ সালে জিম্বাবুইয়ে সিরিজে হারিয়েই প্রথমবার সিরিজ জয়ের আনন্দ পায়। সেই থেকে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলে ১৫টি সিরিজে জিতে বাংলাদেশ। এর মধ্যে ৫ ম্যাচের সিরিজ খেলে ১২টি। জিতে ৭টি সিরিজে। হারে ৫টি সিরিজে। দেশের মাটিতে ৫ ম্যাচের সিরিজ ৬টি খেলে একটিতেও এখন পর্যন্ত হারেনি বাংলাদেশ। জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে ৮৭ ও দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ৬৮ রানে জিতে সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেছে মাশরাফিবাহিনী। হাতে আছে পাঁচ ম্যাচের সিরিজের তিনটি ওয়ানডে। আজ, শুক্রবার ও সোমবার হবে যথাক্রমে তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম ওয়ানডে। তবে আজই বাংলাদেশ সিরিজ জিতে নিতে চায়। জিতলেই সিরিজে হারানোর সঙ্গে ৫ ম্যাচের সিরিজে জিম্বাবুইয়েকে ষষ্ঠবার হারানোর গৌরব অর্জন করবে বাংলাদেশ। সেই সঙ্গে জিম্বাবুইয়েকে অষ্টমবারের মতো সিরিজে হারানোর স্বাদ পাবে। এরপরই শুরু হয়ে যাবে জিম্বাবুইয়েকে ওয়ানডেতেও হোয়াইটওয়াশ করার পালা। আজকের ম্যাচটিতেও বাংলাদেশের জেতার সম্ভাবনাই বেশি। ফেবারিটও বাংলাদেশ। যদি জিম্বাবুইয়ে মঙ্গলবার কঠোর অনুশীলন করেছে। নিজেদের ঝালিয়ে নিয়েছে। যেন ঢাকায় এসে প্রাণ ফিরে পেয়েছে। কিন্তু হারতে থাকা একটি দল যে কতটা বিধ্বস্ত তাও বোঝা যায়। এখন বাংলাদেশ জিতে গেলেই হয়। এ জয় আবার বাংলাদেশকে বছরজুড়ে হারতে থাকার পর টানা তিন জয়ও এনে দেবে। বছরের প্রথম সিরিজ জয়ও হবে। আজকের ম্যাচটি জিতলে জিম্বাবুইয়েকে যে ২০০৬ সালে ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ করেছিল বাংলাদেশ, সেই স্মৃতি আবারও জাগানোর সুযোগ থাকবে। খুলনাতে টেস্ট সিরিজ জয় হয়েছে। চট্টগ্রামে টেস্টে জিম্বাবুইয়েকে হোয়াইটওয়াশ করার গৌরব মিলেছে। এবার ঢাকায় ওয়ানডে সিরিজ জিতে নেয়ার পালা। বাংলাদেশ একের অধিক ম্যাচের সিরিজ খেলা শুরু করে ১৯৯৯ সালে। আর ২০০৩ সালে প্রথম ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলে। ২০০৩ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে সেই সিরিজের প্রতিটি ম্যাচেই হারে বাংলাদেশ। সেই থেকে ৫ ম্যাচের সিরিজ খেলে ৫টি ম্যাচই হয়েছে, এমন সিরিজে একবারই প্রতিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ করতে পেরেছে বাংলাদেশ। ২০০৬ সালে জিম্বাবুইয়েকে। এবার হোয়াইটওয়াশ করতে হলে সব ম্যাচই জিততে হবে। তবে আজই সুযোগ জিম্বাবুইয়েকে সিরিজে হারানোর। হারিয়ে ৫ ম্যাচের সিরিজে দেশের মাটিতে না হারার রেকর্ড অক্ষুণœ রাখারও সুযোগ। জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে ২০০৪ সালে প্রথমবার ৫ ম্যাচের সিরিজ খেলে বাংলাদেশ। ১-২ ব্যবধানে (দুটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়) হারে। এর পর ২০০৫ সালেই প্রতিশোধ নেয়। ৩-২ ব্যবধানে সিরিজে জিতে বাংলাদেশ। পরের বছরই আবার ২-৩ ব্যবধানে হারে বাংলাদেশ। একবার জিম্বাবুইয়ে, একবার বাংলাদেশ জিতে। একই বছর ৫-০ ব্যবধানে জিতে প্রথমবারের মতো ৫ ম্যাচের সিরিজে জিম্বাবুইয়েকে হোয়াইটওয়াশ করে বাংলাদেশ। এরপর যেন শুধু বাংলাদেশেরই জয়জয়কার। টানা তিনবার জিম্বাবুইয়েকে সিরিজে হারায় বাংলাদেশ। ২০০৯ সালেই দুইবার, ২০১০ সালে একবার বাংলাদেশ এ অর্জন নিজেদের করে নেয়। তবে সর্বশেষ ২০১১ সালে যে দুই দলের মধ্যকার পাঁচ ম্যাচের সিরিজ হয়, সেটিতে হারে বাংলাদেশই। সেই সিরিজটি হয় জিম্বাবুইয়েতে। দেশের মাটিতে বাংলাদেশ কোনবারই ৫ ম্যাচের সিরিজ হারেনি। ২০০৫ সালে প্রথমবার জিম্বাবুইয়েকে ৩-২ ব্যবধানে হারায়। এরপর ২০০৬ সালে একই দলের বিপক্ষে ৫-০ ব্যবধানে, ২০০৯ সালে আবারও জিম্বাবুইয়েকে ৪-১ ব্যবধানে, ২০১০ সালে নিউজিল্যান্ডকে ৪-০ ব্যবধানে, একই বছর আবার জিম্বাবুইয়েকে ৩-১ ব্যবধানে, সর্বশেষ ২০১২ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৩-২ ব্যবধানে হারায় বাংলাদেশ। দেশের মাটিতে সিরিজ জয় অক্ষুণœ রাখে। এবার বাংলাদেশের সামনে আবারও দেশের মাটিতে ৫ ম্যাচের সিরিজে জয় অক্ষুণœ রাখার কঠিন চ্যালেঞ্জ নিতে হয়েছে। প্রথম দুই ওয়ানডেতে জিতে, সিরিজ জয়ের দ্বারপ্রান্তেই আছে বাংলাদেশ। এখন শুধু আরেকটি জয়ের অপেক্ষা মাত্র। সিরিজ জয়ের উৎসব আজই হয়ে যেতে পারে। এবার টেস্টে টানা তিনটি ম্যাচে হারের পর, প্রথম ও দ্বিতীয় ওয়ানডেতেও হারে জিম্বাবুইয়ে যে বিধ্বস্ত অবস্থায় আছে, বাংলাদেশ যে ফুরফুরে মেজাজে রয়েছে তাতে সিরিজ জয় যে সময়ের ব্যাপার; তা বোঝাই যাচ্ছে। সিরিজ জয় হলে রেকর্ডও অক্ষুণœ থাকবে। হাতে থাকা তিন ওয়ানডেতে এখন হোঁচট না খেলেই হয়।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: