২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

যশোরে খুন হচ্ছে আওয়ামী লীগের নিবেদিত নেতাকর্মী বাড়ছে উৎকণ্ঠা


স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ যশোরে খুন হচ্ছেন আওয়ামী লীগের নিবেদিত নেতারা। দলীয় কোন্দলে গত এক বছরে খুন হয়েছেন সংগঠনটির জনপ্রিয় পাঁচ নেতা। একের পর এক দলীয় নেতাকর্মী খুন হওয়ায় এখন অনেকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছেন। অপরদিকে, হত্যায় জড়িতরা প্রভাবশালী ও চিহ্নিত সন্ত্রাসী হওয়ায় উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় দিনাতিপাত করছেন নিহতের স্বজনরা।

২০১৩ সালের ২৯ অক্টোবর থেকে ২০১৪ সালে ১৮ নবেম্বর এই সাড়ে ১১ মাসেই যশোর সদরে খুন হয়েছে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করা আওয়ামী লীগের পাঁচ নেতা। এরমধ্যে গতবছর ২৯ অক্টোবর খুন হয়েছেন পৌরসভার এক নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, চলতি বছর ১৫ জানুয়ারি সন্ধ্যায় ঘোপ বেলতলায় খুন হন শহর যুবলীগের রফিকুল ইসলাম শিপন, গত ২৫ মে হামলার ঘটনায় ১৯ জুন খুন হন সদর উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন, ৯ আগস্ট খুন হন শহর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবদুল মান্নান এবং সর্বশেষ খুনের শিকার হয়েছেন চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের নেতা শহিদুল ইসলাম। অব্যাহতভাবে দলীয় নেতাকর্মীরা খুন হতে থাকায় রাজপথে শক্ত ভূমিকা রাখা নেতারা এখন আতঙ্কে দিন পার করছেন। দল ক্ষমতায় থাকার পরও দলীয় নেতাকর্মী খুন হওয়া এবং হত্যাকা-ে জড়িতরা আটক ও তাদের বিচার না হওয়ায় নিবেদিত কর্মীর মনে শঙ্কা তাড়া করে ফিরছে। এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে যশোরের সহকারী পুলিশ সুপার রেশমা শারমীন বলেন, ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগ নেতা নজরুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা আলমগীর হোসেন, আব্দুল মান্নান এবং রফিকুল ইসলাম শিপন হত্যার অভিযোগে আটক আসামিরা আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। শহিদুল ইসলাম হত্যাকান্ডের ব্যাপারে তিনি বলেন, আসামিদের আটকের জন্য অভিযান অব্যাহত আছে। অচিরেই তারা আটক হবে।