১২ ডিসেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

তিন বসতবাড়ি ও ২৫ দোকান পুড়ে ছাই


জনকণ্ঠ ডেস্ক ॥ মুন্সীগঞ্জে তিন পরিবারের সর্বস্ব পুড়ে ছাই হয়েছে। এ ছাড়া বরিশালে ১৫ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও সিদ্ধিরগঞ্জে ১০ দোকান পুড়ে ছাই হয়েছে। খবর স্টাফ রিপোর্টার ও নিজস্ব সংবাদদাতাদের পাঠানোÑ

মুন্সীগঞ্জ ॥ টঙ্গীবাড়ী উপজেলার চাঠাতিপাড়া গ্রামে সোমবার রাতে অগ্নিকা-ে সর্বস্ব হারানো ৩ পরিবারের মধ্যে এখনও চলছে বুকফাটা কান্না। আগুনে পুড়ে যাওয়া ধ্বংসস্তূপ থেকে এক একটা জিনিস বেরিয়ে আসতেই ফুকফাটা বোবা আর্তনাদ করছে পরিবারের সদস্যরা। মঙ্গলবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, এক পলকে সব হারানোর ব্যথা তারা কিছুতেই ভুলতে পারছে না।

সিদ্ধিরগঞ্জ ॥ সিদ্ধিরগঞ্জের হিরাঝিলের ডিএনডি ক্যানেল রোড এলাকার ফার্নিচার মার্কেট ও ওয়েস্টেজ কাপড়ের দোকানে আবারও অগ্নিকা-ের ঘটনা ঘটেছে। এতে ফার্নিচার দোকান ও ওয়েস্টেজ কাপড়ের দোকানসহ প্রায় ১০টি দোকান পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

জানা যায়, বেলা আড়াইটায় হিরাঝিলের ডিএনডি ক্যানেল রোডের টিনের তৈরি ফার্নিচার ও ওয়েস্টেজ মার্কেটের একটি দোকান থেকে আকস্মিকভাবে অগ্নিকা- শুরু হয়।

বরিশাল ॥ জেলার বানারীপাড়া বন্দরে সোমবার মধ্য রাতে অগ্নিকা-ে ১৫ ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান সম্পূর্ণ ভস্মীভূত হয়েছে। এতে প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন। বানারীপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ এজে মোর্শেদ আলী জানান, বন্দরের ব্যবসায়ী মনির মিয়ার খাবারের হোটেলের রান্নাঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত।

টাঙ্গাইলে যৌতুকের বলি গৃহবধূ

নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল, ১১ নবেম্বর ॥ টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলার ধোপাখালী গ্রামে যৌতুকের জন্য স্বামী খুন করল স্ত্রী শিল্পী বেগমকে (৩২)।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, বার বার যৌতুক চেয়ে না পেয়ে সোমবার রাতে ধনবাড়ী উপজেলার ধোপাখালী গ্রামের মৃত উসমান আলীর ছেলে তমছের আলী তার স্ত্রী দুই কন্যা সন্তানের জননী শিল্পী বেগমকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রাখে। খবর পেয়ে পুলিশ ওইদিন রাতেই লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। এ ব্যাপারে নিহত শিল্পী বেগমের বাবা সিরাজ মিয়া বাদী হয়ে ধনবাড়ী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

শিশুকে হত্যা

নাগরপুরে সুমি নামের আট বছরের এক শিশুকে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। হত্যা করে তার লাশ ঘরের জানালার সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখে। মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ নাগরপুর উপজেলার সলিমাবাদ গ্রামের বড় মসজিদের পাশের একটি বাড়ি থেকে ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করে। জানা গেছে, সলিমাবাদ গ্রামের সোবহান মিয়া ও তার স্ত্রী দুজনেই চাকরিজীবী।