১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নিক্সনের পদত্যাগে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন


ওয়াটারগেট কেলেঙ্কারির সময় যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশ সিনিয়রের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার কথা প্রথমবারের মতো প্রকাশ করলেন তাঁর ছেলে আরেক সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ। জুনিয়র বুশের নতুন বই ‘ফোরটি ওয়ান, পোট্রেট অব মাই ফাদার’-এ দাবি করা হয়েছে যে, তৎকালীন প্রেসিডেন্ট রিচার্ড নিক্সনকে পদত্যাগের অনুরোধ করে চিঠি লিখেছিলেন সিনিয়র বুশ। জর্জ এইচ ডব্লিউ বুশকে নিয়ে লেখা নতুন বইটি চলতি সপ্তাহে প্রকাশিত হয়েছে। এখানে ৪১ সংখ্যাটি দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে সিনিয়র বুশের অবস্থান বোঝানো হয়েছে। বইতে বুশ বলেছেন, তখন রিপাবলিকান ন্যাশনাল কমিটির চেয়ারম্যান সিনিয়র বুশ ১৯৭৪ সালের ৭ আগস্ট রিচার্ড নিক্সনকে একটি গোপন চিঠি লিখেন। চিঠিতে তিনি নিক্সনকে পদত্যাগ করার অনুরোধ করেন। এর পরদিনই নিক্সন পদত্যাগ করেন এবং সিনিয়র বুশ ওই চিঠির কথা কখনও বলেননি। এর ২৭ বছর পর যুক্তরাষ্ট্রের ৪১তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন সিনিয়র বুশ। বইয়ের ‘ডিপ্লোম্যাসি’ চ্যাপ্টারে জুনিয়র বুশ লিখেছেন, ১৯৭৪ সালের ৫ আগস্ট চূড়ান্ত খড়গ নেমে আসে। ওইদিন হোয়াইট হাউসকে ওয়াটারগেটের নতুন বিশেষ প্রসিকিউটর লিওন জাওরস্কির হাতে সব টেপ তুলে দেয়ার নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রীমকোর্ট। ওই প্রসিকিউটর বাবার বন্ধু ছিলেন। ওই টেপগুলোতে প্রকাশ পায় যে, নিক্সন তাঁর সহযোগীদের ওয়াটারগেট নিয়ে এফবিআইয়ের তদন্তে বাধা দিতে বলছেন। গভীর অসন্তোষ থাকা সত্ত্বেও প্রকাশ্যে নিক্সনের সমালোচনা করেননি আমার বাবা। তিনি ৭ আগস্ট প্রেসিডেন্টের কাছে গোপনে চিঠি লিখে তাঁর মতামত জানান। জুনিয়র বুশ বইতে আরও লিখেছেন, আমার জানা মতে আমেরিকার ইতিহাসে তিনিই একমাত্র পার্টি চেয়ারম্যান যিনি এমন চিঠি লিখেছিলেন। Ñটেলিগ্রাফ