১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সতর্কবাণী অগ্রাহ্য ওবামার


মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা অভিবাসন সংস্কার প্রশ্নে তাঁর প্রতিশ্রুত নির্বাহী ব্যবস্থা গ্রহণে বিলম্ব করুন বলে কংগ্রেসের শীর্ষ রিপাবলিকান সদস্যদের পরামর্শ দৃঢ়ভাবে প্রত্যাখ্যান করেছেন। কংগ্রেসকে আগামী বছর এ ইস্যুতে বিতর্ক করতে দিতে তাঁর দলের ভেতরের ও বাইরের সমালোচকদের আহ্বান তিনি নাকচ করে দিয়েছেন। শুক্রবার হোয়াইট হাউসে আয়োজিত এক ভোজসভায় প্রতিনিধি পরিষদের স্পীকার জন এ বোয়েনার (রিপাবলিকান-ওহিও), সিনেট মাইরিটি লিডার মিচ ম্যাককোনেল (রিপাবলিকান-কেন্টাকি) ও তাঁদের সহকারীরা ওবামাকে সতর্ক করে দেন যে, অভিবাসন প্রশ্নে তিনি একাই ব্যবস্থা নিলে নতুন ডিওপি নিয়ন্ত্রিত কংগ্রেসে অন্যান্য প্রশ্নে দ্বিপক্ষীয় মতৈক্য হওয়ার সম্ভাবনা নষ্ট হবে। ওবামা মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত মধ্যবর্তী নির্বাচনের পর নতুন কংগ্রেস নেতৃবৃন্দের সম্মানে এ ভোজসভার আয়োজন করেন। খবর ওয়াশিংটন পোস্টের।

ওবামা তাঁর জবাবে বলেন যে, তিনি অভিবাসন ইস্যুতে এগিয়ে যেতে চান। তিনি ওই ইস্যুতে কংগ্রেসের পদক্ষেপের জন্য এরই মধ্যে প্রায় দুই বছর অপেক্ষা করেছেন। তাঁর সিদ্ধান্ত অসংশ্লিষ্ট বিষয়ে সহযোগিতার সুযোগ নষ্ট করুকÑএটা হতে দেয়া উচিত। ওয়াকিফহাল সূত্রে এটা জানা যায়। ওবামার পরিকল্পনার সঙ্গে পরিচিত এমন কয়েকজন জানান, ওবামার নির্বাহী আদেশবলে অভিবাসন ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনার দিকে নতুন করে দৃষ্টি দেয়া হয়েছে। কারণ প্রেসিডেন্ট ৫০ লাখ অবৈধ অভিবাসীকে যুক্তরাষ্ট্রে অন্তত সাময়িকভাবে অবস্থান করতে দেয়ার প্রস্তাব পর্যালোচনা করছেন বলে জানা যায়। তিনি চীন, মিয়ানমার ও অস্ট্রেলিয়া সফর শেষে দেশে ফিরে এসে চলতি মাসে বা ডিসেম্বরের প্রথমদিকে তাঁর অভিপ্রায় ঘোষণা করবেন বলে মনে হয়। অভিবাসন প্রশ্নে ওবামার প্রতিশ্রুতি কংগ্রেস সদস্যপদে রিপাবলিকান প্রার্থীদের জন্য রাজনৈতিক প্রচারের খোরাক যুগিয়েছিল। তারা তাঁর একতরফা পদক্ষেপ নেয়ার সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেছিলেন। তার মধ্যবর্তী নির্বাচনে প্রেসিডেন্টের ডেমোক্রেটিক পার্টির শোচনীয় পরাজয়ের পর ওবামার সাবেক উপদেষ্টা ও এখনও ঘনিষ্ঠ ডেভিড এ্যাক্সেলরড টুইটারে অভিমত ব্যক্ত করেন যে, ওবামার উচিত ওই ইস্যুতে তাঁর পদক্ষেপ নেয়ার পরিকল্পনা স্থগিত রাখা, কারণ এ নিয়ে প্রতিনিধি পরিষদে সরাসরি ভোট হতে পারে। কিন্তু কংগ্রেসের ডেমোক্রেট সদস্যরা এবং অভিবাসন সংস্কার আন্দোলনকারীরা ওবামা এ ইস্যুতে এগিয়ে যান বলে দাবি করছেন। তিনি এখনও পদক্ষেপ না নেয়ায় কেউ কেউ দুঃখ প্রকাশ করেন। হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জোস আর্নেস্ট শুক্রবার জানান, ওবামা অভিবাসন নিয়ে খুবই মনোযোগী রয়েছেন এবং তাঁকে থামাতে হলে রিপাবলিকানরা একটি কাজই করতে পারেন।

তাঁরা ওই বাস্তবোচিত, দ্বিপক্ষীয় বিলটিকে সিনেট থেকে প্রতিনিধি পরিষদে আনতে দিতে পারেন। যদি প্রতিনিধি পরিষদ সিনেটে পাস হওয়ার বিলটি পাস করে, তা হলে প্রেসিডেন্ট নির্বাহী ব্যবস্থা নেবেন না। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র নিশ্চিতভাবেই ওই পদক্ষেপ থেকে উল্লেখযোগ্যভাবে উপকৃত হবে। আর্নেস্ট দুটি দলের সমর্থনক্রমে ২০১৩ সালে সিনেটে পাস হওয়া একটি বিলের প্রতি ইঙ্গিত করছিলেন। বিলটিতে দেশের অভিবাসন ও সীমান্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থায় ব্যাপক পরিবর্তন আনতে চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু বোয়েনার ও প্রতিনিধি পরিষদের রিপাবলিকানরা বিলটি প্রত্যাখ্যান করেন।

যদি ওবামা অভিবাসন সংস্কার প্রশ্নে ব্যবস্থা না নেয়ার সিদ্ধান্ত নেন, তা হলে বোয়েনার অভিবাসন বিল উত্থাপন করার সম্ভাবনা বাতিল করে দিচ্ছেন না। তিনি চলতি সপ্তাহে সাংবাদিকদের বলেন, এ অভিবাসন ইস্যুটি গত ১০ বছর বা এরও বেশি সময় ধরে এক রাজনৈতিক ইস্যু হয়ে রয়েছে। এখন এর নিরসন করার সময়।