১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

‘আগামী এক বছরে মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুশঙ্কা নেই’


দাবি কিংবদন্তি বক্সারের চিকিৎসকের

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ প্রায় মাস গড়াতে চলল। কিংবদন্তি বক্সার মোহাম্মদ আলী আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে আছেন। সারাবিশ্বের বিভিন্ন গণমাধ্যমে ফলাও করে লেখা হয়েছে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে চলে গেছেন ‘ক্যাসিয়াস ক্লে’ নামে বক্সিং রিং শাসন করা এ বক্সার। ১৯৮৪ সাল থেকেই মস্তিষ্কের প্রদাহজনিত ভয়ানক পারকিনসন্স রোগের কারণেই তিনি এবার এত সঙ্কটাপন্ন পরিস্থিতিতে পৌঁছে গেছেন। কিন্তু এবার তাঁর ব্যক্তিগত চিকিৎসক ড. আব্রাহাম লিবারম্যান জানালেন, আগামী ৬ মাস থেকে ১ বছরের মধ্যে মৃত্যুমুখে পতিত হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই আলীর। সেই সঙ্গে বক্সিংয়ের জন্যই পারকিনসন্স রোগে আক্রান্ত হয়েছেন এ বক্সার এমন দাবিও নাকচ করে দিয়েছেন তিনি।

গত মাসে আলীকে নিয়ে নির্মিত বিশেষ হলিউডি মুভি ‘আই এ্যাম আলী’র ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার ছিল। কিন্তু হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার কারণে সে অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারেননি তিনি। এ বিষয়ে তাঁর ছোট ভাই রহমান বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে ভাইয়ের সঙ্গে কথাই বলতে পারিনি তাঁর অসুস্থতার জন্য। তিনি ঠিকভাবে কথাও বলতে পারছিলেন না। কিন্তু তিনি গর্বিত যে আমরা সবাই তাঁর জন্য এখানে এসেছি। তিনি জানিয়েছেন, তাঁর জন্য নির্মিত ছবিটির জন্য নিজেকে আশীর্বাদপুষ্ট মনে করছেন।’ তবে ৭২ বছর বয়সী আলীর ছেলে নিজেও বিশ্বাস করতে পারছেন না যে তাঁর বাবা এ বছর শেষতক বেঁচে থাকবেন। তিনি বলেন, ‘আমি শুধু এটাই চাই যে তিনি যে মারাত্মক রোগে আক্রান্ত হয়ে কষ্ট পাচ্ছেন সেটা দীর্ঘায়িত না হোক। দ্রুতই তিনি চলে যান এটাই কামনা।’ সম্প্রতিই আলীর অবস্থা পর্যবেক্ষণ করেছেন তাঁর ব্যক্তিগত চিকিৎসক লিবারম্যান। তিনি মনে করেন না আলী অন্য কারও চেয়ে বেশি সঙ্কটাপন্ন পরিস্থিতিতে আছেন। তবে জানিয়েছেন, অনেক কিছুই ঘটতে পারে যা ঈশ্বরের ইচ্ছা। তবে মেডিক্যাল তত্ত্ব মোতাবেক তিনি বলেন, ‘আমি এই মুহূর্তে এমন কিছু দেখছি না যাতে বলা যায় তিনি আগামী ছয় মাস কিংবা এক বছরের মধ্যে মৃত্যুবরণ করবেন। মানুষ কখনও পারকিনসন্স রোগে মৃত্যুবরণ করে না। তবে ধীরে ধীরে নানা সমস্যা বাড়তে থাকে। যেমন কঠিন নিউমোনিয়া হতে পারে। মাথায় গ-গোল দেখা দিতে পারে। এ জন্য তাঁর পরিবারকে একটু বাড়তি যতœ নেয়া জরুরী। তিনি মানসিকভাবে দারুণ শক্ত আছেন। হাঁটাচলার ক্ষেত্রে তাঁর কিছুটা সমস্যা আছে। কিন্তু সর্বোপরি আমি বলব, যে ব্যক্তির ৩০ বছর ধরে পারকিনসন্স রোগ আছে তিনি অবশ্যই এ জন্য মারা যাবেন না। সবকিছুই ঠিকঠাক আছে।’ লিবারম্যান বর্তমানে মোহাম্মদ আলী পারকিনসন সেন্টারের পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।